ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে এইচএসসি পরীক্ষা

চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষা আগামী ডিসেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার জন্য চারটি খসড়া রুটিন তৈরি করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন পাওয়ার পর রুটিন প্রকাশ করবে শিক্ষা বোর্ডগুলো।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে এসব কথা জানান আন্ত:শিক্ষা সমন্বয় বোর্ড সাব কমিটির সভাপতি ও ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর নেহাল আহমেদ।

এর আগে শনিবার দুপুরে একাধিক গণমাধ্যমে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির বরাত দিয়ে ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বলে খবর প্রচার করা হয়।

এ প্রসঙ্গে প্রফেসর নেহাল আহমেদ জানান, কারা এ ধরণের খবর ছেপেছে সেটি আমার জানা নেই। তবে ১ থেকে ৭ ডিসেম্বরের মধ্যে এইচএসসি পরীক্ষা আয়োজনের জন্য খসড়া রুটিন তৈরি করা হয়েছে। এর যেকোন দিন থেকে পরীক্ষা শুরু হবে।

এদিকে আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষা আয়োজনের প্রস্তাব করা হয়েছে। খসড়া রুটিনে শিক্ষার্থীরা প্রতিটি পরীক্ষা শেষে একদিন করে বিরতি পাবেন। এছাড়া সকালে বিজ্ঞান বিভাগের এবং বিকেলে ব্যবসায় শিক্ষা শাখার পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, পরীক্ষার খসড়া রুটিন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। এটি অনুমোদন হয়ে আসলে ১০টি শিক্ষা বোর্ডে একযোগে রুটিন প্রকাশ করা হবে। প্রস্তাবিত রুটিনে পরীক্ষার্থীদের একদিন করে বিরতি দেওয়া হয়েছে। টানা পরীক্ষা নেওয়া হবে না।

এ প্রসঙ্গে প্রফেসর নেহাল আহমেদ দ্যা ডেইলি ক্যাম্পাসকে বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এখনো আমাদের রুটিন প্রকাশের অনুমোদন দেওয়া হয়নি। তবে আশা করছি আজ অথবা আগামীকাল অনুমোদন পেয়ে যাবো। এরপর সব শিক্ষা বোর্ডে একযোগে রুটিন প্রকাশ করা হবে।

খসড়া রুটিন সম্পর্কে তিনি আরও বলেন, খসড়া রুটিনে পরীক্ষার্থীদের একদিন করে বিরতি দেওয়া হয়েছে। উদাহারণ দিয়ে তিনি বলেন, ধরুণ ১৪ নভেম্বর থেকে পরীক্ষা শুরু। তাহলে ওইদিন সকালে বিজ্ঞানের পরীক্ষা হবে। আর বিকেলে হবে ব্যবসায় শিক্ষা শাখার পরীক্ষা। আর পরেরদিন অর্থাৎ ১৫ নভেম্বর হবে মানবিক বিভাগের পরীক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *