ঘরের কোন জায়গা কতদিন পর পরিষ্কার করবেন

সুস্থ থাকার জন্য ঘরবাড়ি পরিষ্কার রাখার বিকল্প নাই। যদি একবার মাইক্রোস্কোপ দিয়ে দেখতেন তবে বুঝতেন প্রতিটা কোনে কি পরিমাণ ব্যাকটেরিয়া আর ভাইরাসে ভরা। তাই ঘরের শুধুমাত্র মেঝেই নয়, পরিষ্কার রাখতে হবে ঘরের প্রতিটি কোন এবং বস্তু। এছাড়াও ধুলা, মাটি, বালি, চুল আর মরা চামড়াও পাবেন। অনেকেই আছেন প্রতিদিন ঘরবাড়ি পরিষ্কার করেন আবার অনেকেই সেই সময়ও পান না। চলুন জেনে নেই ঘরের বিভিন্ন জায়গা কবে আর কীভাবে পরিষ্কার করবেন। বেসিন ও সিংক এগুলো প্রতিদিন ধোয়া উচিত

এলার্জিজনিত সমস্যা ও প্রতিরোধের উপায়

এলার্জি হচ্ছে ইমিউন সিস্টেমের একটা দীর্ঘস্থায়ী অবস্থা যা পরিবেশের কোনো এলার্জেনের কারণে শরীরে হাইপারসেনসিটিভিটি দেখায় কিংবা অপ্রত্যাশিত প্রতিক্রিয়া দেখায়। এলার্জেন: যদি কোনো বস্তু বা উপাদান কোনো মানুষের শরীরে হাইপারসেনসিটিভ রিয়েক্ট দেখায় সেসব বস্ত বা উপাদন সমূহ সেসব মানুষের জন্য এলার্জেন। এলার্জিক রিয়েকশন: কোন অ্যালার্জেন শরীরের সংস্পর্শে এলে শরীরে যেসব অপ্রত্যাশিত প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা যায় তাকে এলার্জিক রিঅ্যাকশন বলে। আবার এটাকে হাইপেরসেন্সিটিভিটি রিয়েকশনও বলা হয়। হাইপারসেনসিটিভিটি রিঅ্যাকশন কে চার ভাগে ভাগ করা যায়, তবে চার প্রকারের

নিয়মিত আনারস খেলে যেসব রোগ সারবে

আনারসে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন আছে। যা শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়াও আনারসে আছে নানা ধরনের পুষ্টিগুণ। যা একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যা থেকে বাঁচাতে পারে। বিশ্বজুড়ে জনপ্রিয় এই ফলটি সারাবছরই কমবেশি পাওয়া যায়। বিশেষজ্ঞদের মতে, আনারসে আছে একাধিক স্বাস্থ্য উপকারিতা। এতে থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্টস এবং অন্যান্য সহায়ক যৌগগুলো শরীরের বিভিন্ন প্রদাহ এবং রোগের সঙ্গে লড়াই করতে পারে। এ ছাড়াও হজমশক্তি বাড়ায়, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং যেকোনো সার্জারি থেকে সুস্থ হয়ে উঠতে সাহায্য করে। এক কাপ

গরুর পায়া দিয়ে সুস্বাদু নেহারি

আমাদের দেশে এখনো সবার ঘরে ঘরে চলছে কুরবানির ঈদ- উৎসব। মাংস খাওয়া ধুম এখনো শেষ হচ্ছে না। এখোনো অনেকের কলিজা বাকি, ভূড়ি বাকি, ঝুরা মাংস বাকি। ফ্যাশনপ্রেমীরা যখন ভোজনরসিক হয় তখন পারলে গরুর চামড়া টা দিয়ে লেদারের ব্যাগ বা জুতা বানিয়ে ফেলে। খাওয়া থেকে বাদ যাবে না গরুর কোন অংশ। সেই তালিকায় এখনো আছে গরুর পায়া। গরম গরম পরোটা বা রুটির সাথে নেহারির স্বাদ অনন্য। ভোজনরসিকদের কাছে প্রিয় একটি নাম এই নেহারি। আসুন জেনে নেই

আসল বন্ধু চিনবেন যেভাবে

আমাদের সবার জীবনেই বন্ধু রয়েছে। বন্ধুত্ব শব্দটির মধ্যেই রয়েছে এক অদ্ভুত অনুভূতি। রক্তের সম্পর্ক না থাকলেও বন্ধুর সঙ্গে গড়ে ওঠে এক আত্মার সম্পর্ক। তবে আসল বন্ধু খুঁজে পাওয়া কঠিন। অনেক বন্ধুত্বই গড়ে উঠে শুধু স্বার্থের জন্য বা নানান সুযোগ সুবিধা গ্রহণের জন্য। কিন্তু প্রকৃত বন্ধুত্ব কখনও স্বার্থের উপর নির্ভর করেনা। অনেক সময় চিনতে ভুল হয় আসল বন্ধুটি কে সেটি বুঝতে। জেনে নিন প্রকৃত বন্ধু চেনার কিছু কৌশল- প্রকৃত বন্ধু আপনাকে শুধু প্রয়োজনে নয়, সে সবসময়

বদহজম দূর করার ঘরোয়া উপায়

বদহজমের স্বীকার কমবেশি সবারই হয়ে থাকে। একটু অনিয়ম করলেই বদহজম যেন নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে যায়। অনেক সময় মসলাদার ও ঝাল খাবার খাওয়ার কারণেও এ সমস্যা দেখা দেয়। এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে অনেক সময় প্রয়োজনীয় ওষুধটা হাতের কাছে থাকে না। সে জন্য জেনে নিতে পারেন বদহজম দূর করার কয়েকটি ঘরোয়া পদ্ধতি- -দুই চামচ আদার রস, এক চামচ লেবুর রস, এক চিমটি লবণ উষ্ণ পানির সঙ্গে মিশিয়ে সেবন করলে বেশ উপকার পাবেন। – দুধে থাকা ক্যালসিয়াম

মানিব্যাগ অপরিচ্ছন্ন করে রাখার অভ্যেস রয়েছে! ভয়ানক ক্ষতি হতে পারে বলে জানাচ্ছেন বাস্তু বিশেষজ্ঞরা

সকলেরই কমবেশি মানিব্যাগ ব্যবহার করার অভ্যাস রয়েছে কিন্তু Wallet ব্য়বহার করতে গেলে কয়েকটা নিয়ম মাথায় রাখতেই হয়। মানিব্যাগে শুধু টাকা নয়, তাতে থাকে অনেক দরকারি জিনিসপত্র। কেউ মানিব্যাগের ভিতরে ঠাকুরের ছবি রাখতে পছন্দ করে, কেউ আবার প্রিয়জনের ছবি ভিতরে রাখতে ভালবাসেন। বিজনেস কার্ড, ATM স্লিপ, দোকানের বিল থেকে নানা রকমের দরকারি জিনিস থাকে Walletএ। কয়েকটি জিনিস মানিব্যাগে একেবারেই রাখা উচিত নয় বাস্তু বিশেষজ্ঞদের মতে, বেশ কয়েকটি জিনিস মানিব্যাগে একেবারেই রাখা উচিত নয়। টাকা মানে লক্ষ্মীর

আপনার মেদ যেভাবে ঝরাবে আদা

আমাদের শরীরের অতিরিক্ত যেকোনও অংশই ক্ষতিকারক। মেদ তাদের ভেতর অন্যতম। বর্তমান পরিস্থিতিতে লকডাউনের জন্য আমরা অনেকে হোম অফিস করছি, অনেকে ঘরের বাহিরে খুব একটা যাচ্ছি না। এতে শরীরের মেদ বাড়ার সম্ভাবনা আছে। মেদ শারীরিক নানাবিধ সমস্যার সঙ্গে সঙ্গে দৈনন্দিন জীবন যাপনেও আনতে পারে বিরক্তি। শরীরে মেদ একবার বাসা বাঁধলে দূর করা অনেক কঠিন। এছাড়া প্রতিনিয়ত দৈনন্দিন জীবনে মুখোমুখি হতে হয় বিভিন্ন রকমের সমস্যায়। যেমন ধরুন, আপনার পছন্দের একটি শার্ট আছে। কিন্তু আপনি পড়তে পাড়ছেন না,

এক কাপ সুস্বাদু চা শুধু মনকেই ফুরফুরে করে তোলে না, নিমেষেই আনে ঝকঝকে ত্বক

চায়ে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় তার ফলে ত্বকের যেকোনও জীবাণু সংক্রমণ জাতীয় সমস্যা দূর করতে সহায়ক চা। তাই প্রতিদিন চা খেলে সহজেই নরম ও ঝকঝকে ত্বক পাওয়া যায় এমনটাই মত বিশেষজ্ঞদের। মানসিক অবসাদ, ক্লান্তি দূর করে চা বৃষ্টি কিংবা শীত যেকোনও মরসুমেই চা মন ও শরীরকে তরতাজা করে তোলে। বন্ধুদের সঙ্গে জমিয়ে আড্ডা থেকে কাজের এনার্জি সবেতেই চা অপরিহার্য। পরিস্থিতি যেরকমই হোক না কেন বাঙালির চা-প্রেম কমবে না। চা (Tea) আপনার ত্বকের উপর ঠিক কেমন

গলা-ঘাড় ও বগলের কালো দাগ দূর করার জাদুকরী উপায়

গলা ও ঘাড় আমাদের দেহের একটি খোলা অংশ। বেশির ভাগ সময়েই আমাদের গলা ও ঘাড় খোলা থাকে। বেশীরভাগ ক্ষেত্রে খোলা থাকার কারণে অনেক সময় রোদে পুড়ে কিংবা অযত্ন অবহেলার কারণে ঘাড় ও গলার সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যায়। তবে গলা-ঘাড় ও বগলের কিছু দাগ মন খারাপের কারণ। নানা রকমের প্রসাধনী ব্যবহার করেও মুক্তি পাচ্ছেন না। চিন্তার কারণ নাই, আপনার জন্য আছে গলা-ঘাড় ও বগলের কালো দাগ দূর করার জাদুকরী ঘরোয়া কিছু উপায়-যা করবেন পদ্ধতি- ১.গলা ও