জরুরি খবরঃ জেনে নিন যে সকল শ্রেণির ক্লাস প্রতিদিন

করোনা সংক্রমণ হার কমতে থাকায় সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ঘোষণা দিল সরকার। আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে সারাদেশের স্কুল-কলেজ খুলছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভা শেষে এক ব্রিফিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি নিজেই এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, ১২ সেপ্টেম্বর থেকে স্কুল-কলেজে ক্লাস শুরু হবে। এসএসসি-এইচএসসি ও পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস হবে প্রতিদিন।প্রি-প্রাথমিকে আপাতত ক্লাস হবে না। ডা. দীপু মনি বলেন, শুরুর দিকে ২০২১ সালে যারা

বৈঠকে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত হয়নি

আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে দেশের স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়া হলেও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে না। আগামী ১৫ অক্টোবরের পরে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার আগের সিদ্ধান্ত বহাল রয়েছে। আজ রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বৈঠক শেষে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, গত মাসে আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিদের সঙ্গে বৈঠক করে শিক্ষার্থীদের অন্তত ১ ডোজ টিকা দিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। তখন মধ্য অক্টোবরের পর বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। “তবে বর্তমানে করোনা সংক্রমণ কমে আসায় শিগগির

স্কুল-কলেজ খোলার প্রস্তুতিতে ১৯ নির্দেশনা

করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় দেড় বছর ধরে বন্ধ দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো। করোনা সংক্রমণ নিম্নমুখী হওয়ায় প্রাথমিক থেকে উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছে সরকার। বন্ধ থাকা এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে খুলে দেওয়া হবে। আজ রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সভাপতিত্বে কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, যুব

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললেও হবে না যেসব নিয়ম পালন!

আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। স্কুল খোলার সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও আপাতত শিক্ষার্থীদের অ্যাসেম্বলি করানো হবে না বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। রবিবার (০৫ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সভা কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, স্কুল খোলা হলেও করোনার কারণে শিক্ষার্থীদের অ্যাসেম্বলি বন্ধ থাকবে। কিন্তু শিক্ষকদের তত্ত্বাবধনে স্বল্প পরিসরে খেলাধুলা করা যেতে পারে। তিনি বলেন, আজকের বৈঠক থেকেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়টি চূড়ান্ত হয়েছে। শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মচারি ও

মাত্র পাওয়াঃ জানা গেল যে সকল শ্রেণীর পরীক্ষার্থীদের ক্লাস প্রতিদিন

আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে দেশের স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়া হয়ে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর ১২ সেপ্টেম্বর থেকে পঞ্চম শ্রেণী, এসএসসি-এইচএসসির পরীক্ষার্থীদের প্রতিদিন ক্লাস হবে। আজ রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয়ের বৈঠক শেষে গণমাধ্যমের কাছে এ তথ্য জানান তিনি। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পঞ্চম শ্রেণী, এসএসসি-এইচএসসির পরীক্ষার্থী ছাড়া বাকি শিক্ষার্থীদের সপ্তাহে একদিন ক্লাস করে ক্লাস হবে। এর আগে, গতকাল শনিবার এক অনুষ্ঠানে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান

প্রথম দিন ৪-৫ ঘণ্টা ক্লাস, পর্যায়ক্রমে সময় বাড়বে: দীপু মনি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়েছেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললেও প্রথম দিন ৪-৫ ঘণ্টা ক্লাস হবে, পর্যায়ক্রমে ক্লাসের সময় ও সংখ্যা বাড়ানো হবে। রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান তিনি। শিক্ষামন্ত্রী বলেছেন, ‘১২ সেপ্টেম্বর শুরুর দিন চার-পাঁচ ঘণ্টা ক্লাস হবে। পর্যায়ক্রমে ক্লাসের সংখ্যা ও সময় বাড়বে। প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে চেকলিস্ট পূরণ করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে হবে। রেন্ডম স্যাম্পল (নিয়মিত নমুনা পরীক্ষা) করে সংক্রমণের ঝুঁকি থাকলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করার সিদ্ধান্তও নেয়া হতে পারে।’ তিনি বলেন,

সংক্রমণ বাড়লে সেখানে বন্ধ থাকবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। তবে স্কুল খোলার পর যেসব এলাকায় করোনা সংক্রমণ বাড়বে সেই সব এলাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হবে। রবিবার (০৫ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সভা কক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, যে এলাকায় করোনা সংক্রমণ বাড়বে সেই এলাকায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। তিনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া পর করোনা পরিস্থিতির ওপর কড়া নজর রাখা হবে। যখনই কোনো এলাকায় সংক্রমণ বেড়ে

মাত্র পাওয়াঃ স্কুল খুললেও ক্লাস হবে না যে শ্রেণীর!

ঢাকা: করোনা সংক্রমণ হার কমতে থাকায় সারাদেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ার ঘোষণা দিল সরকার। আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে সারাদেশের স্কুল-কলেজ খুলছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সভা শেষে এক ব্রিফিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি নিজেই এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, ১২ সেপ্টেম্বর থেকে স্কুল-কলেজে ক্লাস শুরু হবে। এসএসসি-এইচএসসি ও পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস হবে প্রতিদিন।প্রি-প্রাথমিকে আপাতত ক্লাস হবে না। ডা. দীপু মনি বলেন, শুরুর দিকে ২০২১ সালে

জেনে নিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুললে কোন শ্রেণির কত দিন ক্লাস

আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তবে দেশের করোনা পরিস্থিতি এখনও পুরোপুরি শেষ না হওয়ায় সব শ্রেণির শিক্ষার্থীদের প্রতিদিন ক্লাস নেওয়া সম্ভব হবে না। রবিবার (০৫ সেপ্টেম্বর) শিক্ষামন্ত্রীর সভাপতিত্বে সচিবালয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, পঞ্চম, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের সপ্তাহে প্রতিদিনই ক্লাস নেওয়া হবে। বাকিদের সপ্তাহে একদিন করে ক্লাস নেওয়া হবে। অর্থাৎ ১ম, ২য়, ৩য় ও চতুর্থ শ্রেণির ক্লাস এবং

গাজীপুরে ঝুট গুদামে ভয়াবহ আগুন

গাজীপুরের টঙ্গীর পূবাইলের মাজুখান এলাকায় একটি ঝুট গুদামে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের সাতটি ইউনিট কাজ শুরু করছে। রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) সকাল সোয়া ১০টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। টঙ্গী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা ইকবাল হোসেন জানান, বেলা সোয়া ১০টার দিকে টঙ্গীর মাজুখান এলাকার একতা ঝুট মিলের গুদামে আগুন লাগার খবর পান। টঙ্গীর তিনটি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে। পরে উত্তরা থেকে আরও চারটি ইউনিট যোগ দেয়। এখন পর্যন্ত আগুন লাগার